বাংলাদেশ: রবিবার ১৬ জানুয়ারি ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
২ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরি

  বাংলাদেশ: রবিবার ১৬ জানুয়ারি ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরি  

শেষ আপডেটঃ ৬:৩৯ পিএম

একজন নাছির উদ্দিনকে চর্চা করতে পারলেই প্রজন্ম আলোকিত হবে

13 / 100

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি: কক্সবাজার সাহিত্য একাডেমীর ৪৭৬ তম পাক্ষিক সাহিত্য আসর আড্ডা অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

২৩ অক্টোবর শনিবার বিকেলে কক্সবাজার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত আড্ডা সভাপতিত্ব করেন একাডেমীর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, বিশিষ্ট লোকজ গবেষক, একাধিক গ্রন্থের প্রণেতা সাংবাদিক মুহম্মদ নূরুল ইসলাম।


বরাবরের ন্যায় একাডেমীর আড্ডায় কথামালা, প্রিয় কবি ও স্বরচিত কবিতা এবং সঙ্গীত পরিবেশনা থাকলেও এবারের আড্ডায় একাডেমীর সহ সভাপতি ছড়াকার মোঃ নাছির উদ্দিনকে কক্সবাজার জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার করায় একাডেমীর পক্ষ থেকে তাঁকে সংবর্ধনার আয়োজনটি নতুন মাত্রা দিয়েছে।

সংবর্ধিত অতিথির বক্তব্য রাখছেন মোঃ নাছির উদ্দিন।


একাডেমীর সদস্য ছড়াকার জহির ইসলামের কোরআন তেলাওয়াতের পর সংবর্ধিত অতিথি বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ মোঃ নাছির উদ্দিনকে একাডেমীর পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান স্থায়ী পরিষদের সদস্য কবি হাসিনা চৌধুরী লিলি।


একাডেমীর অফিস ও প্রচার প্রকাশনা সম্পাদক সাংবাদিক আজাদ মনসুরের ইন্টারনেটে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানা গেছে, অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কক্সবাজার জেলা শিক্ষা অফিসার ও ছড়াকার মোঃ নাছির উদ্দিন। 

সংবর্ধিত অতিথি তাঁর প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন, কক্সবাজার সাহিত্য একাডেমী কক্সবাজারের অনেককে কবি-সাহিত্যিক হিসেবে প্রতিষ্ঠা দিয়েছে। সাহিত্য একাডেমী সাহিত্য এখনো নিজস্ব অবস্থানে আছে। কিন্তু যারা সাহিত্য একাডেমীর ছাতার নিচে এসে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পেরেছেন তারা সাহিত্য একাডেমীকে আমলেই নেয় না। এটা সবচেয়ে দুঃখজনক।

এসময় তিনি আরও বলেন, আমি নিজেও সাহিত্য একাডেমীর সাথে যুক্ত হয়ে অনেক কিছু শিখেছি, অনেক কিছু রপ্ত করতে পেরেছি। তিনি সাহিত্য একাডেমীর সাথে আমৃত্যু থাকার থোষণা দেন।


এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন, কক্সবাজার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা মাসুদা মোর্শেদা আইভী, কক্সবাজার সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রাম মোহন সেন ও বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ, বাচিকশিল্পী ও কবি আদিল চৌধুরী।

অতিথিবৃন্দ তাঁদের বক্তব্যে বলেন, একজন নাছির উদ্দিন বহুমুখি প্রতিভার অধিকারী। তাঁর সৃজন চিন্তা ও সুন্দর মানসিকতা দিয়ে পৃথিবী জয় করার সক্ষমতা রয়েছে।মানুষটা এতটা নিরহংকারী, সৎ, হাস্যোজ্জ্বল, প্রাণবন্ত, দাম্ভিকতামুক্ত, সারল্যময় শিক্ষাবিদ যে, তিনি প্রজন্মের জন্য অনুকরণীয় বটে।

অতিথিবৃন্দের একাংশ।


একাডেমীর সাধারণ সম্পাদক, অনুবাদক ও কবি রুহুল কাদের বাবুলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আলোচনায় অংশ নেন, কক্সবাজার উন্নয়ন কতৃপক্ষের সাবেক সদস্য প্রকৌশলী বদিউল আলম, মূল্যায়ন সম্পাদক ও কবি অমিত চৌধুরী, কবি ও গল্পাকার সোহেল ইকবাল, কবি হাসিনা চৌধুরী লিলি, কবি মছরুর উজ জামান ও কবি জোসনা ইকবাল।


বক্তব্য রাখছেন একাডেমীর স্থায়ী পরিষদের সদস্য কবি আদিল চৌধুরী।
উপস্থিত কবি-সাহিত্যিকদের একাংশ।


প্রিয় কবি ও স্বরচিত কবিতা পাঠে অংশ নেন, কবি মনজুরুল ইসলাম,  কবি হাকিমুন নেছা বাপ্পী, কবি সাফিয়া নুর মোকারমা, কবি কামরুন্নেছা বুলবুল, কবি মা উন টিন, কানিজ ফাতেমা, কবি জোসনা ইকবাল, কবি মোস্তাক আহমদ মুসা, আবৃত্তি শিল্পী কল্লোল দে চৌধুরী, ছড়াকার ও গীতিকার জহির ইসলাম, কবি আমির উদ্দিন, কবি মছরুর উজ জামান, কবি আদিল চৌধুরী, গল্পাকার সোহেল ইকবাল, কবি নাছির উদ্দিন, কবি রুহুল কাদের বাবুল।


অনুষ্ঠানের শেষে সঙ্গীত পরিবেশন করে সবাইকে মাতিয়ে রাখেন, ব্যাংকার, কবি ও গীতিকার নুরুল আলম হেলালী ও কবি জোসনা ইকবাল।

উপস্থিত কবি-সাহিত্যিকদের একাংশ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, একাডেমীর নির্বাহী কমিটির সদস্য ও কক্সবাজার আইন কলেজের অধ্যাপক শামসুল আলম কুতুবী, সাহিত্যানুরাগি সাইফুল আলম, রায়হান উদ্দিন প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *