বাংলাদেশ: বুধবার ১২ জানুয়ারি ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
২৮ পৌষ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ৮ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরি

  বাংলাদেশ: বুধবার ১২ জানুয়ারি ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৮ পৌষ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ৮ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরি  

শেষ আপডেটঃ ৬:২৪ পিএম

কক্সবাজারে কয়েক লাখ পর্যটক

7 / 100

নুরুল আমিন হেলালী, কক্সবাজার: কয়েক লাখ পর্যটক এখন দেশের পর্যটন শহর কক্সবাজারে। বিজয় দিবসের ছুটিসহ সাপ্তাহিক ছুটি মিলিয়ে টানা তিন দিনের ছুটি পেয়ে কক্সবাজারে ছুটে এসেছেন এসব পর্যটক।

বৃহস্পতিবার সকালে সৈকতের বালিয়াড়িতে যতদূর চোখ যায় মানুষ আর মানুষ। দীর্ঘ বালিয়াড়ি জুড়ে মানুষের স্রোতে যেন তিল ধারণের ঠাঁই নেই। দেশি-বিদেশি পর্যটকের পদভারে মুখরিত হয়ে উঠেছে সৈকতের অলিগলি ও পর্যটন স্পটগুলো।

এই সময়ে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন ও কক্সবাজার-সেন্টমার্টিন রুটের পর্যটকবাহী ৮টি জাহাজের টিকিটও অগ্রিম বুকিং হয়ে গেছে। পর্যটকদের কোলাহলে নতুন করে প্রাণচাঞ্চল্য ফিরেছে সেন্টমার্টিন দ্বীপ, মহেশখালী আদিনাথ মন্দির, হিমছড়ি, ইনানী, দরিয়ানগর, সোনাদিয়া, বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কসহ বিভিন্ন পর্যটন স্পট।

কক্সবাজার পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামান জানিয়েছেন, পর্যটকদের অনাকাঙ্ক্ষিত হয়রানি রোধে, পোশাকধারী পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোশাকে এবং পর্যটক বেশেও পুলিশের নারী সদস্যরা সৈকতে ঘুরছেন।

অন্যদিকে নিরাপত্তার পাশাপাশি প্রাথমিক চিকিৎসা, তথ্য সেবা, পানীয় জলের ব্যবস্থাসহ নানা সেবামূলক কার্যক্রমের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ট্যুরিস্ট পুলিশের এসপি মো. জিল্লুর রহমান।

সৈকতের লাবনী, সুগন্ধা, কলাতলীসহ ১১টি পয়েন্টে স্থাপন করা হয়েছে তথ্য কেন্দ্র। পর্যটকদের করোনা সংক্রমণ রোধে স্বাস্থ্যবিধি মানতে সর্বদা সচেতনতা মূলক মাইকিং ও প্রয়োজনে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ।

জেলা প্রশাসক আরও জানান, পর্যটক হয়রানি বন্ধে মাঠে থাকছে জেলা প্রশাসনের নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে একাধিক ভ্রাম্যমাণ আদালত। কোথাও পর্যটক হয়রানির অভিযোগ পেলে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *