বাংলাদেশ: বৃহস্পতিবার ১৮ আগস্ট ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
৩ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | ১৯ মহর্‌রম ১৪৪৪ হিজরি

  বাংলাদেশ: বৃহস্পতিবার ১৮ আগস্ট ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৩ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | ১৯ মহর্‌রম ১৪৪৪ হিজরি  

শেষ আপডেটঃ ৭:০৫ পিএম

প্রদীপের নির্দেশেই সিনহাকে গুলি করে লিয়াকত

8 / 100

এইনগরে প্রতিবেদন: মেজর (অব) সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়েছে। সোমবার জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাঈলের আদালতে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়। সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য আদালতে উপস্থিত থাকতে ৮৩ সাক্ষীর মধ্যে ১৫ সাক্ষীকে সমন জারি করা হয়।

সোমবার সকাল সোয়া ১০টায় মামলার বাদী ও সিনহার বড় বোন শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌসের সাক্ষ্যদানের মধ্য দিয়ে বিচারকাজ শুরু হয়। এর আগে বরখাস্ত হওয়া টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ ১৫ আসামিকে সকাল পৌনে ১০টায় কক্সবাজার জেলা কারাগার থেকে কড়া পুলিশ পাহারায় আদালতে আনা হয়।

এরপর সকাল সোয়া ১০টায় সিনহা হত্যা মামলার প্রথম দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়। সাক্ষ্যগ্রহণ ২৫ আগস্ট পর্যন্ত চলবে। প্রথম দফায় তিন দিনের প্রতিদিন ৫জন করে সাক্ষী উপস্থিত থাকবেন। প্রথম দিনে মামলার বাদী শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌস, টেকনাফ শামলাপুরের আবদুল হামিদ ও মোঃ ইউনুছ সমন পেয়ে আদালতে হাজিরা দেন। বিচারক বিচার কাজের শুরুতেই মামলার বাদীর সাক্ষ্যগ্রহণ করেন।

মামলার বাদী শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌস আদালতে দাঁড়িয়ে বলেন, সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশের নির্দেশে সাবেক পরিদর্শক লিয়াকত আলী গুলি করে হত্যা করেছে মেজর (অব) সিনহাকে। প্রত্যক্ষদর্শীদের কাছে জেনে আমি হত্যা মামলা দায়ের করেছি। মামলার বিচার শুরু হওয়ার প্রথম দিনে ১৫ আসামি আদালতে উপস্থিত রয়েছে বলে জানিয়ে বাদীপক্ষের আইনজীবী বলেন, প্রসিকিউশন পক্ষ বাদীর সাক্ষ্যগ্রহণ করার পর আসামি পক্ষের আইনজীবীরা তাকে একে একে জেরা করেন।

উল্লেখ্য, গত বছর ৩১ জুলাই রাতে টেকনাফ বাহারছড়া শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান। এ ঘটনায় সিনহার বোন শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌস বাদী হয়ে টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও বাহারছড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের সাবেক ইনচার্জ পরিদর্শক লিয়াকত আলীসহ ৯ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

এদিকে সোমবার সকালে সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও পরিদর্শক লিয়াকত আলীর ফাঁসি দাবি করে মানববন্ধন করেছে বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা। এতে শত শত মানুষ অংশ নেন। সোমবার বেলা ১১টায় জেলা ও দায়রা জজ আদালত চত্বরে অসহায় নির্যাতিত সমাজ ও লাভ বাংলাদেশের ব্যানারে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *