বাংলাদেশ: বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
৫ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরি

  বাংলাদেশ: বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৫ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরি  

শেষ আপডেটঃ ৫:৫৫ পিএম

বরিশালে করোনায় সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড

8 / 100

এইনগরে অনলাইন ডেস্ক: বরিশাল বিভাগে করোনা শনাক্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছেই। সোমবার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় এ বিভাগে করোনা ও উপসর্গ নিয়ে সর্বোচ্চ মৃত্যু হয়েছে। এ সংখ্যা ৩১।

মৃতদের মধ্যে করোনায় ১৩ ও উপসর্গ নিয়ে ১৮ জন মারা গেছেন; একই সময়ে করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন ৭৯৮ জন।

সোমবার সকালে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিভাগীয় পরিচালক ডা. বাসুদেব কুমার দাস।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালের করোনার আইসোলেশন ওয়ার্ডে উপসর্গ নিয়ে ১৮ জন এবং করোনা ওয়ার্ডে করোনায় আক্রান্ত হয়ে পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়া বিভাগের বিভিন্ন জেলা-উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনায় আক্রান্ত হয়ে আরও আটজনের মৃত্যু হয়েছে।

করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃতদের মধ্যে বরিশালে চার, পটুয়াখালীতে দুই, ভোলায় ছয় ও পিরোজপুরে একজন রয়েছেন। সব মিলিয়ে বরিশাল বিভাগে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৮৭ জনে।

একই সময় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭৯৮ জন। এ নিয়ে বিভাগে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৪ হাজার ৬২৭ জনে। তাদের মধ্যে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৯ হাজার ৪৩৬ জন।

আক্রান্তদের মধ্যে বরিশাল জেলায় নতুন ২৮২ জন নিয়ে মোট ১৪ হাজার ৪১৫ জন, পটুয়াখালীতে নতুন ১২৯ নিয়ে মোট চার হাজার ৫৪৬ জন, ভোলায় নতুন ১৬০ জনসহ মোট চার হাজার ৬৪ জন, পিরোজপুরে নতুন ৮২ জনসহ মোট চার হাজার ৪৫৪, বরগুনায় নতুন ৮৩ নিয়ে মোট তিন হাজার ২৬ জন ও ঝালকাঠিতে নতুন ৬২ জন নিয়ে মোট চার হাজার ১২২ জন রয়েছেন।

এদিকে শেবাচিম হাসপাতালের পরিচালকের দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় পর্যন্ত শেবাচিমের করোনার আইসোলেশন ওয়ার্ডে ৪৭ জন ও করোনা ওয়ার্ডে ৯ জন ভর্তি হয়েছেন। করোনা ও আইসোলেশন ওয়ার্ডে এখন ৩১১ চিকিৎসাধীন।

তাদের মধ্যে ১১৪ জন করোনা ওয়ার্ডে এবং ১৯৭ জন আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন। আরটি পিসিআর ল্যাবে ১৮৮ জন করোনা পরীক্ষা করান। এর মধ্যে ৫৫ দশমিক ৮৫ শতাংশ পজিটিভ শনাক্তের হার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *