বাংলাদেশ: বুধবার ২৬ জানুয়ারি ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
১২ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরি

  বাংলাদেশ: বুধবার ২৬ জানুয়ারি ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১২ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরি  

শেষ আপডেটঃ ৫:৪৯ পিএম

স্বল্প দামে বিয়ের আয়োজন

13 / 100

এইনগরে লাইফস্টাইল: কনের নাম জ্যামাইকা ওয়ালডেন। বর ব্যারি এম। জুলাইয়ের ১০ তারিখে বিয়ে করেছেন তাঁরা। তারপর একটু থিতু হয়ে বউ নিজেই নিজের বিয়ে নিয়ে লিখেছেন ‘ভোগ’ ম্যাগাজিনের ব্রিটিশ সংস্করণে। ব্রিটিশ ভোগের অনলাইন সংস্করণে ‘ফ্যাশনিস্তা মেয়েটি স্ট্রবেরি পোশাকে বিয়ে করে মাকে ভালোবাসা জানাল’ শিরোনামে ১ আগস্ট ছাপা হয়েছে লেখাটি।

বিয়ের পর খাওয়াদাওয়া
বিয়ের পর খাওয়াদাওয়া

একটা বিয়ে কতটা কম আয়োজনে, সাধারণভাবে হতে পারে, তার উদাহরণ হয়ে থাকবে এই বিয়ে। ২০১৯ সালে তাঁদের বাগদান হয়। ২০২০ সালে বিয়ের ইচ্ছে থাকলেও উপায় হয়নি। এক বছর অপেক্ষার পর জ্যামাইকা আর ব্যারি ঠিক করলেন মহামারিকালেই সারবেন বিয়ে। তা–ও আবার ‘ডেস্টিনেশন ওয়েডিং’।

স্বল্প আয়োজনের বিয়ে
স্বল্প আয়োজনের বিয়ে 

বিয়ের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার লস অ্যাঞ্জেলেসের একটা ভ্যালি ভাড়া করেন জ্যামাইকারা। ভোরবেলা নিজেরাই গাড়ি চালিয়ে চলে যান যেখানে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সারবেন সেই স্থানে। স্থান বলতে একটা বাগান। আর সেই বাগানের ভেতর একটা ওয়াইনের কুটির। সেখানে স্ন্যাকসও পাওয়া যায়। তবে তাঁরা অর্ডার করে ডিনার সেরেছেন। সঙ্গে নিয়ে গিয়েছিলেন পোষা কুকুর। সকাল ৯টায় এল বিয়ের গাউন।

রৌদ্রজ্জ্বল দিনে দুজনে মিলে সেরে ফেললেন বিয়ে
রৌদ্রজ্জ্বল দিনে দুজনে মিলে সেরে ফেললেন বিয়ে 

নিজের বিয়ের গাউনের আইডিয়া দিয়েছিলেন জ্যামাইকা। আর সেটি বানিয়েছিলেন ক্রিস্টোফার জন রজার্স। হট গোলাপি স্ট্রবেরি ড্রেস। জ্যামাইকার মা–ও এ রকম একটি পোশাক পরেই বিয়ে করেছিলেন। তাই নিজের বিয়েতেও সেই ঐতিহ্য ধরে রাখতে চেয়েছিলেন। নিজের বিয়েতে নিজেই সেজেছেন জ্যামাইকা। বিয়ে পড়ানো ও রেজিস্ট্রির জন্য উপস্থিত ছিলেন একজন যাজক। আর ফটোগ্রাফার বলতে ছিল জ্যামিকার বান্ধবী মার্গট ল্যানডেন।

ডিনারের জন্য এগোচ্ছেন নয়া দম্পতি
ডিনারের জন্য এগোচ্ছেন নয়া দম্পতি 

বিয়েতে হট পিঙ্ক স্ট্রবেরি পোশাকটার সঙ্গে ছিল মানোলো ব্লানিকের সাদা রঙের হিল, ক্যারেন ওয়াকারের বানানো ঘোমটা আর গয়না ধার করেছিলেন ফক্স অ্যান্ড বন্ড থেকে। গয়না বলতে হাতের আংটি আর কানের দুল। বিয়ে শেষ করে এই বর–কনে বাগানের সঙ্গে লাগোয়া খাবারের কুটিরে গিয়ে ডিনার সারেন। ডিনারের সময় বাজছিল তাঁদের প্রিয় রোমান্টিক গানের সুর।

বর ব্যারি এম ও কনে জ্যামাইকা ওয়ালডেন
বর ব্যারি এম ও কনে জ্যামাইকা ওয়ালডেন

জানালা দিয়ে দিগন্তে তাকিয়ে আকাশের ক্রমাগত রং বদলে যাওয়া দেখতে দেখতে একসঙ্গে জীবন কাটিয়ে দেওয়ার প্রতিজ্ঞা করেছেন তাঁরা। সেই সময়টিই বিয়ের দিনে জ্যামাইকার সবচেয়ে প্রিয় সময়। এভাবেই ন্যূনতম আয়োজনে, ন্যূনতম খরচে বিয়ে সেরেছেন এই জুটি। তবে পরিবার আর বন্ধুদের কথা দিয়েছেন, সময় এলে সবাইকে নিয়ে একটা বড়সড় পার্টি দেবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *